সূচী

ইতিহাস তথ্য ও তর্ক

সম্পাদকীয়

জানুয়ারী ২, ২০২১

‘ইতিহাস তথ্য ও তর্ক’ ওয়েব পত্রিকা ও নতুন বছরের শুভেচ্ছা

বিগত শতকের ঠিক এই সময়টা; বিশ্ব তখন রণক্লান্ত, সাধারণের অর্থনৈতিক অবস্থা অচল, বিশেষত প্রথম বিশ্বের দেশগুলিতে পরিস্থিতি ভয়ংকর। ভারতবর্ষ সহ নানা দেশ তখন লড়ছে স্বাধীনতার আকাঙ্ক্ষায়। কিছুদিন পরেই ফ্যাসিস্ট শক্তি ক্রমশ গ্রাস করবে ইউরোপের পশ্চিমা আকাশ। শুরু হবে চরম অর্থনৈতিক মন্দা। পুরনো সাম্রাজ্যবাদ জায়গা করে দেবে নতুন সাম্রাজ্যবাদকে। শতকের মাঝেই থাকবে আরও ভয়াবহ এক যুদ্ধ।

হ্যাঁ, সে অর্থে আমরা এতদিন কিছুটা শস্তির জায়গায় ছিলাম তো বটেই। কিন্তু অতিমারির করাল গ্রাসে যুদ্ধ ছাড়াই মানুষ মৃত্যুর দুঃস্বপ্ন দেখে, নিম্নবিত্ত ও নিম্নমধ্যবিত্তের খাবার নেই ঘরে, শিক্ষা স্তব্ধ হয়ে আছে, বিগত শতকের এই সময়ের মতই আমরা চলেছি অনিশ্চয়তার দিকে। কোনরকম যুদ্ধ ছাড়াই।

বর্তমান যত দ্রুত পালটাতে থাকে, মানুষকে শিক্ষা নিতে হয় অতীত থেকে। যুদ্ধ নাকি স্থিতাবস্থা, খাদ্য অথবা ধর্ম, উন্নত শিক্ষা-স্বাস্থ্য নাকি অবাস্তব অতীতবিলাস, সম্প্রীতি বা বিভেদ – কোন পদক্ষেপ আমাদের এগিয়ে নিয়ে যাবে তার সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশক ইতিহাস নিজেই। তাই আমাদের লক্ষ্য নিরপেক্ষ ইতিহাসচর্চার মাধ্যমে অতীতকে জানা ও বর্তমানের সঠিক পথ নির্দেশ করা।

আমাদের এই পোর্টালটি সদ্যজাত; অব্যবসায়ী এমন একটি প্লাটফর্ম টিকে থাকতে পারে কেবল পাঠক ও লেখকের সমন্বয়েই। সকলের সাহায্য ছাড়া এই কাজ এগিয়ে নিয়ে যাওয়া অসম্ভব। গত চার মাসের একটু বেশি সময়ের মধ্যেই লেখকদের সৌজন্যে ৫৬টি প্রবন্ধ প্রকাশ করা সম্ভব হয়েছে। এখানে বিষয়ের বৈচিত্র্য রাখার চেষ্টা যেমন হয়েছে, তেমনই নজর দেওয়া হয়েছে সব ধরনের উৎসাহী পাঠকদের আগ্রহের প্রতি। কেবল দুই বাংলার নয়, সারা বিশ্বের বাংলা ভাষাভাষীদের কাছে পৌঁছোনো সম্ভব হয়েছে এই বৈদ্যুতিন ব্যবস্থার মাধ্যমে।

আপনাদের সাহায্য পেলে এই উদ্যোগ ক্রমশ আরও বড় সম্ভাবনার দিকে এগিয়ে যেতে পারে। তাই সকলকে অনুরোধ লেখা পড়ুন, শেয়ার করুন এবং অবশ্যই লেখককে মন্তব্যের মাধ্যমে আপনার মতামত জানান। বাংলা ভাষায় ইতিহাস চর্চাকে উৎসাহিত করুন নতুন বছরে। সকলকে শুভেচ্ছা জানাই।